পিছনের পকেটে মানিব্যাগ রাখলে হতে পারেন পঙ্গু

11

প্যান্টের পিছনের পকেটে মানি ব্যাগ রাখলে ঘার থেক কোমড় পর্যন্ত নানা রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে। যদি সময়মতো রোগের চিকিৎসা করা না হয়, তাহলে পঙ্গু হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে।

নিশ্চয় মনে প্রশ্ন এসেছে- মানি ব্যাগ পেছনের পকেটে রাখলে কীভাবে ক্ষতি হয়?
চলুন জেনে নিই বিস্তারিত-

ঘাড়
আমাদের শরীরকে ধরে রেখেছে শিরদাঁড়া। তাই স্পাইনাল কর্ডই যখন ঠিক না থাকে, তখন আমাদের শরীরের পিছনের দিকে মারাত্বক চাপ পরে, যা থেকে একাধিক রোগ জন্ম নেয়। যার অন্যতম হল ঘাড়ে যন্ত্রণা। প্যান্টের পিছনের পকেটে ব্যাগ রাখলে আমাদের পেলভিসের একটা অংশ উঁচু হয়ে থাকে। যে দিকটা উঁচু হয়ে থাকে শরীর কিছুটা সেদিকে হেলে যায়। ফলে শিরদাঁড়াকেও বেঁকে যেতে হয়। এই ভাবে দীর্ঘক্ষণ শিরদাঁড়া বেঁকে থাকলে ঘাড়ের উপর মারাত্মত চাপ পরে। ফলে শুরু হয় যন্ত্রণা।

পিঠের যন্ত্রণা
পিছনের পকেটে মানি ব্যাগ থাকার সময় বসে থাকলে শরীরে ভারসাম্য বা পসচার নষ্ট হয়ে যেতে শুরু করে। ফলে শিরদাঁড়ার উপর মারাত্মক চাপ পরতে থাকে। যে কারণে পিঠে ব্যথার মতো লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটে। আর যদি ঠিক সময়ে ব্যবস্থা নেওয়া না যায়, তাহলে ক্রনিক পিঠে যন্ত্রণার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। আপনি কি চান আপনার সঙ্গেও এমনটা হোক? না তো। তাহলে আজ থেকেই প্যান্টের পিছনের পকেটের জায়গায় সামনের পকেটে ওয়ালেট রাখা শুরু করুন।

শরীরের ভারসাম্য
পেছনের পকেটে মনি ব্যাগ থাকাকলীন দীর্ঘ সময় বসে থাকলে আমাদের শরীরের নিচের অংশের কিছু গুরুত্বপূর্ণ নার্ভ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সেই সঙ্গে পেলভিস এবং হিপের ভারসাম্যও বিগড়ে যায়। ফলে কোমরের পাশপাশি পিঠে এবং ঘারে মারাত্মক চাপ পরে, ফলে শরীরের এইসব অংশে একাধিক জটিল রোগে আক্রান্ত হয়। এখানেই শেষ নয়, ক্লিনিকাল সায়েন্সের বিখ্যাত চিকিৎসক ডাঃ ক্রাইস গডের মতে পেছনের পকেটে ব্যাগ থাকা অবস্থায় যদি আমরা বসে থাকি তাহলে শিরদাঁড়ার স্বাভাবিক ছন্দ বিগ্নিত হয়। আর এমনটা দীর্ঘ সময় ধরে হতে থাকলে স্পাইনাল জয়েন্ট, পেশি এবং ডিস্ক মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যে কারণে যন্ত্রণা এবং শরীরের এইসব অংশের কর্মক্ষমতা কমে গিয়ে পঙ্গু হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

ওয়ালেট এবং শরীরের নিচের অংশ
মানি ব্যাগ পেছনের পকেটে থাকর সময় বসলে লক্ষ করবেন হিপের এক দিকটা উঁচু হয়ে থাকে, আর আরেক দিকটা নিচু। এমনভাবে দীর্ঘ সময় থাকলে পেলভিসের একাধিক নার্ভ ক্ষতিগ্রস্থ হয়। সেই সঙ্গে আমাদের বসার পসচারও ঠিক থাকে না। ফলে শরীরের নিচের অংশ ধীরে ধীরে বিকল হয়ে যেতে শুরু করে। যদিও এমনটা হতে অনেক সময় লাগে, তবে হয় ঠিকই। আসলে হিপ এবং পেলভিস হল শিরদাঁড়ার ফাউন্ডেশন। তাই ভিতই যদি ঠিক না থাকে তাহলে শরীরের পেছনের অংশ কীভাবে সুস্থ থাকবে বলুন! প্রসঙ্গত, পেছনের পকেটে মানি ব্যাগ রাখলে সায়াটিকা নার্ভের উপর খুব চাপ পরে। এমনটা দীর্ঘ সময় ধরে হতে থাকলে পায়ে যন্ত্রণা এবং অসারতার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

এবার প্রশ্ন হলো কোথায় রাখবেন ওয়ালেট?
পিছনের পকেটের পরিবর্তে যে কোনও জায়গায় রাখতে পারেন। ইচ্ছা হলে প্যান্টের ডান বা বাঁদিকের পকেটে রাখতে পারেন। আর যদি এমনটা করতে ইচ্ছা না হয়, তাহলেও অফিস ব্যাগেও রেখে দিতে পারেন। মোট কথা, বয়সকালে যদি পঙ্গু না হয়ে যেতে চান, তাহলে প্যান্টের পিছনের পকেটে ভুলেও মানি ব্যাগ রাখবেন না।