প্রেমিকের সাথে প্রকাশ্যে ওবামা কন্যা

60
মালিয়া ওবামা ও তার প্রেমিক বোরি ফারকুহারসন। ছবি: সংগৃহীত

কিছুদিন আগে ছোট মেয়ে সাশার রেস্তোরায় কাজ করা নিয়ে বেশ আলোচিত হয়েছিলেন আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। এবার আলোচনায় এসেছেন বড় মেয়ে মালিয়া ওবামার কারণে। সম্প্রতি মালিয়াকে তার প্রেমিকের সাথে নিউইয়র্ক শহরে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে।

এ সময় মালিয়ার গায়ে ছিলো কালো রঙের জ্যাকেট আর প্রেমিক বোরি ফারকুহারসন পড়েছিলেন নীল রঙের জ্যাকেট। তাদের উচ্ছ্বসিত পদচারণা অনেকেরই নজর কেড়েছে।

নিউইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, রাস্তায় হাঁটার সময় আর দশটি তরুণ ইদানীংকালে যা করে, ১৯ বছর বয়সী এই যুগলও তা-ই করেছে। স্মার্টফোনের স্ক্রিনে কিছু একটা নিয়ে খুনসুটিতে মেতে ছিলেন তারা।

ব্রিটিশ ব্যাংক কর্মকর্তার ছেলের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি সামনে আসে গত বছরের শেষ দিকে। আর এরপর থেকেই বিভিন্ন গণমাধ্যমের টার্গেটে পরিণত হন তারা। তবে এ সম্পর্ক নিয়ে মালিয়া যে মোটেও বিব্রত নন তা বোঝা গেছে গত ২০ জানুয়ারি। কারণ এ দিনেই তিনি নিউইয়র্ক শহরের জনবহুল রাস্তায় প্রেমিকের হাত ধরে ঘুরে বেরিয়েছেন।

এর আগে গত নভেম্বরে হার্ভার্ড ও ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ফুটবল খেলা চলাকালে মালিয়া ও রোরির চুমুর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলে। বলা যায় মূলত সে সময় থেকেই ব্রিটিশ গণমাধ্যম এই যুগলের পিছু নিয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে রোরি ফারকুহারসন সম্পর্কে বলা হয়্বেছে, হাইস্কুল থেকেই বেশ জনপ্রিয় রোরি। ব্যাংকার বাবার অর্থের শ্রাদ্ধও এ পর্যন্ত কম করেননি তিনি। বার্ষিক ৪২ হাজার ডলার বেতনে পড়েছেন অভিজাত রাগবি স্কুলে। গলফও বেশ ভালো খেলেন তিনি। আর বারাক ওবামার প্রিয় খেলাও গলফ। তাই এটিকেই ওবামার সঙ্গে তার সুসম্পর্ক হওয়ার একটি শক্ত ভিত হিসেবে দেখা হচ্ছে।

বড় মেয়ের এ প্রণয় নিয়ে ওবামাকে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখিও হতে হয়েছিল। তবে তিনি এ বিষয়ে একদমই চিন্তিত নন। তিনি চান তার সন্তানেরা নিজের মতো করেই জীবনযাপন করুক। এ বিষয়ে তার মন্তব্য হচ্ছে, ‘এরা (নতুন প্রজন্ম) অনেক কিছুই করতে পারে। তাদের নিজস্ব জীবন রয়েছে।’