ব্রিটিশ রাজপুত্রের বিয়েতে দাওয়াত পাননি ট্রাম্প!

55
ফাইল ছবি

ব্রিটিশ রাজপুত্র প্রিন্স হ্যারির সাথে মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মার্কেলের বিয়ে নিয়ে যুক্তরাজ্যে আগ্রহ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রিন্স হ্যারি নিশ্চিত করেছেন বিয়েতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে দাওয়াত করবেন। তবে রাজপরিবারের এই বিয়ের নিমন্ত্রণ পাওয়া নিয়ে কিছুই নাকি জানেন না যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প!

শুধু তাই নয়, আগামী ১৯ মে তাদের বিয়ের যে তারিখ নির্ধারিত হয়েছে- সে বিষয়েও ট্রাম্প নাকি কিছুই জানেন না! তবে অনেক আগেই ব্রিটিশ কেনসিংটন প্রাসাদের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এ বছরের ১৯ মে উইন্ডসর ক্যাসেলের সেইন্ট জর্জ চ্যাপেল চার্চে এ বিয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারির পক্ষ নিয়ে প্রচারণা চালানোর সময় ট্রাম্পকে ‘ছলনাপূর্ণ’ ও ‘নারী বিদ্বেষী’ বলে অভিহিত করেন মেগান মার্কেল। তবে আই টিভির ‘পিয়ার্স মর্গান’ অনুষ্ঠানে এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, প্রিন্স হ্যারি আর মেগান খুব সুন্দর জুটি।

ওই অনুষ্ঠানে তাকে প্রশ্ন করা হয়, যদি সে বিয়েতে অংশগ্রহণ করেন তাহলে তাদের উদ্দ্যশ্যে কি বলতে চান? উত্তরে ট্রাম্প বলেন, আমি তাদের খুব সুখী দেখতে চাই। তারা আমার দেখা সবচেয়ে সুন্দর জুটির মধ্যে একটি।

তবে আদৌ কি ট্রাম্পকে দেখা যাবে রাজ পরিবারের বিয়ের অনুষ্ঠানে? নাকি যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে হিলারী ক্লিনটন গিয়েই হাজির হবেন রাজ প্রাসাদে। কি হতে যাচ্ছে রাজপরিবারের অন্দর মহলে এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

এর আগে গত বছরের মে মাসে ট্রাম্পকে ইংল্যান্ড সফরের দাওয়াত দিলে দেশটিতে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এসব প্রতিবাদও হ্যারি-মেগানের বিয়েতে ট্রাম্পের উপস্থিত থাকা না থাকাকে প্রভাবিত করবে বলেও অনেকের অভিমত।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে অনুষ্ঠিত প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিড্‌লটনের বিয়েতেও তখনকার প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।